Deprecated: Optional parameter $ma declared before required parameter $bn is implicitly treated as a required parameter in /home/bbcjourn/public_html/wp-content/plugins/bangla-date-display/ajax-archive-calendar.php on line 245

Deprecated: Optional parameter $hour declared before required parameter $year is implicitly treated as a required parameter in /home/bbcjourn/public_html/wp-content/plugins/bangla-date-display/uCal.php on line 146

Deprecated: Optional parameter $minute declared before required parameter $year is implicitly treated as a required parameter in /home/bbcjourn/public_html/wp-content/plugins/bangla-date-display/uCal.php on line 146

Deprecated: Optional parameter $second declared before required parameter $year is implicitly treated as a required parameter in /home/bbcjourn/public_html/wp-content/plugins/bangla-date-display/uCal.php on line 146
হিন্দু নারীর প্রাণ বাঁচাতে রোজা ভাঙলেন মুসলিম যুবক | bbcjournal.com

শনিবার ২২শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

স্লাইডার >>
স্লাইডার >>

হিন্দু নারীর প্রাণ বাঁচাতে রোজা ভাঙলেন মুসলিম যুবক

অনলাইন ডেস্ক   |   শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১   |   প্রিন্ট   |   661 বার পঠিত

প্রতীকী ছবি

দুইজন হিন্দু নারীর প্রাণ বাঁচাতে মানবতার অনন্য নজির তৈরি করলেন ভারতের রাজস্থানের উদয়পুরের এক ‍মুসলিম যুবক। করোনাভাইরাসে আক্রান্ত দুই হিন্দু নারীর প্রাণ বাঁচাতে রোজা ভেঙে রক্ত দিলেন তিনি। তার এই মানবিকতার গল্প এখন সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে।

ওই যুবকের নাম আকিল মনসুরি। তিনি সিভিল কন্ট্রাক্টরের কাজ করেন। আর সবার মতো তিনিও রোজা রেখেছিলেন। কিন্তু বুধবার সেই রোজা ভাঙতে হয়। কারণ সোশ্যাল মিডিয়া এবং রক্তদানের সঙ্গে যুক্ত এক সংগঠনের মাধ্যমে আকিল জানতে পারেন যে, করোনা আক্রান্ত দুজন নারীর জন্য ‘এ পজিটিভ’ গ্রুপের প্লাজমা প্রয়োজন। তখনই আকিল এগিয়ে আসেন।

৩৬ বছরের নির্মলা এবং ৩০ বছরের অলকার জন্য দ্রুত হাসপাতালে পৌঁছে যান আকিল। তিনি জানান যে, প্লাজমা দানের বিষয়টি জানতেন তিনি। কারণ করোনা থেকে সেরে ওঠার পর তিনি একাধিক বার প্লাজমা দিয়েছিলেন।

বুধবার হাসপাতালে পৌঁছানোর পর তাকে পরীক্ষা করেন ডাক্তাররা। সব রকম পরীক্ষার পর তারা জানান আকিল প্লাজমা দানের জন্য একদম ফিট। কিন্তু যখন জানতে পারেন যে সকাল থেকে কিছুই খাননি আকিল তখন ডাক্তাররা তাকে কিছু খেয়ে নেয়ার পরামর্শ দেন।

ডাক্তারদের পরামর্শ মেনে খাবার খান তিনি। এরপর তার রক্ত সংগ্রহ করা হয়। রক্ত দেয়ার পর আকিল বলেন, মানুষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছি। রক্ত দিতে গিয়ে রোজা ভাঙার জন্য কোনও আফসোস নেই। ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে করোনা থেকে সুস্থ হওয়ার পর এ পর্যন্ত ১৭ বার রক্ত দিয়েছেন আকিল।

Facebook Comments Box

Posted ১০:১০ পূর্বাহ্ণ | শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১

bbcjournal.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত