চুরি করতে গিয়ে মরদেহের সঙ্গে বিকৃত যৌনতা!

রবিবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ | ৮:৪১ পূর্বাহ্ণ |

চুরি করতে গিয়ে মরদেহের সঙ্গে বিকৃত যৌনতা!

উদ্দেশ্য ছিল চুরি করা। সেই পরিকল্পনা নিয়ে শ্মশানে ঢোকে এক যুবক। তারপর যে কাণ্ড ঘটল, তা শুনে আঁতকে উঠছেন অনেকেই।

ব্রিটিশ যুবক কাসিম খুররাম। ২৩ বছর বয়সী এই যুবক উপার্জনের জন্য প্রায়ই চুরি করেন। একদিন তিনি ঢুকে পরেন বার্মিংহামের একটি শ্মশানে। সেখানে দেখতে পান একের পর এক মৃতদেহ। পরিকল্পনা ছিল চুরি করার; কিন্তু নেশার ঘোরে ভুলে যান আসল কাজ।

পরিবর্তে পরপর তিনটি মৃতদেহের সঙ্গে উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠে ওই যুবক। বিকৃত যৌনতার কথা রটতে সময় লাগেনি বেশিক্ষণ। খবর পৌঁছায় প্রশাসনের কাছেও। অভিযুক্ত ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়।

আরও পড়ুন : মোবাইলে প্রতারণা, আমিরাতে ২৪ প্রবাসী গ্রেফতার

শুরু হয় বিচার। আদালতের প্রশ্নের মুখে অভিযোগ স্বীকার করেন ওই যুবক। আদালতকে তিনি জানান, শ্মশানে চুরির উদ্দেশ্যে গিয়েছিলেন তিনি। নেশায় ডুবে ছিলেন সেই সময়। নেশার ঘোরে শ্মশানে থাকা তিন মৃতদেহের সঙ্গে উদ্দাম যৌনতায় মেতে ওঠেন তিনি।

তবে অভিযুক্তের আইনজীবীর দাবি, গ্রেফতারির পর তদন্তের স্বার্থেই কাশিম খুররাম নিজের দোষ স্বীকার নিয়েছেন। নেশার ঘোরেই এমন কাজ করেছেন তিনি। এর আগে কখনও মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতায় মেতে ওঠেনি কাশিম। এমনকি নেক্রোফিলিক অর্থাৎ মৃতদেহের সঙ্গে যৌনতার প্রবণতা তার চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যে নেই বলেও দাবি ওই আইনজীবীর।

আরও পড়ুন : টাকা না দেয়ায় ছেলেকে বলি দিতে চান ‘পাগলা বাবা’

অভিযুক্তের স্বীকারোক্তি শুনে অবাক হয়ে যান খোদ বিচারক। কিন্তু কেন আচমকা এমন বিকৃত যৌনতায় মেতে উঠলেন কাশিম, তার কোনও ব্যাখ্যাই দিতে পারছেন না তিনি। অপরাধের ভিত্তিতে ওই যুবককে ৬ বছরের কারাদণ্ডের নির্দেশ দেন বিচারক। আপাতত তাই শ্রীঘরেই থাকতে হবে ওই যুবককে।

২০১১-২০১৬ | বিবিসিজার্নাল.ডটকম'র কোনো সংবাদ বা ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না

Development by: webnewsdesign.com