প্রেম সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে কুমিল্লায় কলেজছাত্রকে গলা কেটে হত্যা, অন্যজন গুলিবিদ্ধ

বুধবার, ০৪ এপ্রিল ২০১৮ | ৪:০৩ অপরাহ্ণ |

প্রেম সংক্রান্ত দ্বন্দ্বে কুমিল্লায় কলেজছাত্রকে গলা কেটে হত্যা, অন্যজন গুলিবিদ্ধ

কুমিল্লা নগরী রেইসকোর্স এলাকায় কলেজছাত্র সাগর দত্তকে (১৯) হত্যা এবং তার বন্ধু সজিব সাহাকে গুলি করে হত্যাচেষ্টার পেছনে প্রেম সংক্রান্ত দ্বন্দ্ব রয়েছে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

এর আগে, বুধবার রেইসকোর্স পাকা পোল বিএইচ ভূঁইয়া হাউজ থেকে সাগর দত্তের (১৯) গলা কাটা মরদেহ এবং একই কক্ষ থেকে সজিব সাহাকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে পুলিশ। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি ছুরি ও বটি উদ্ধার করা হয়েছে। বুধবার ভোরে এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত সাগর দত্ত কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার বারেরা ইউনিয়নের চিররা গ্রামের শংকর দত্তের বড় ছেলে এবং কুমিল্লা সরকারি কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্র।

আহত সজিব সাহা ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বাঞ্চারামপুর উপজেলার উজান চর গ্রামের রাখাল সাহার ছেলে এবং কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের ডিগ্রি পাস কোর্সের শেষ বর্ষের ছাত্র।

স্থানীয়রা জানান, ভোর সাড়ে ৬টায় হঠাৎ গুলির আওয়াজ শুনে জানালা দিয়ে তাকালে দুইজনকে দৌঁড়ে পালিয়ে যেতে দেখেন। পরে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখা যায় দুইজনের মুখে স্কচটেপ লাগানো। একজন রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। অন্যজন গুলিবিদ্ধ অবস্থায় নড়াচড়া করছে।

সূত্র আরো জানায়, বিএইচ ভূঁইয়া হাউজ মালিক চিন্ময় ভৌমিক। তার গ্রামের বাড়ি চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার পাথই গ্রামে। তিনি নগরীর শাসনগাছা এলাকার একটি হাসপাতালে কাজ করেন।

তার স্ত্রী শেফালী ভৌমিক বলেন, তাদের বাড়িটা তিনতলা বিশিষ্ট। তৃতীয় তলায় তারা থাকেন। দ্বিতীয় তলায় একটি ফ্যামিলি থাকে। আর নিচতলায় দীর্ঘ ৫ বছর যাবৎ ব্যাচেলরদের ভাড়া দিয়ে আসছেন। গত এক বছর পূর্বে নিচতলার তিনটি রুম গুলিবিদ্ধ সজিব সাহা ভাড়া নেয়। তিনরুমে ৬ জন তরুণ থাকতো। কেউ চাকরি করে, কেউ আবার ছাত্র। সবাই হিন্দু পরিবারের সন্তান বলে তিনি জানান।

সাগরের মৃত্যুর সংবাদ শুনে তার চাচা অমর দত্ত ঘটনাস্থলে আসেন। তিনি জানান, সাগর দত্ত চান্দিনার চিররা হাইস্কুল থেকে এসএসসি পাশ করে গত বছর কুমিল্লা সরকারি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি হন। তারা দুই ভাই। সাগর দত্ত ও স্বাধীন দত্ত। সাগর বড়। সাগর সরল প্রকৃতির ছেলে। তার মৃত্যুর সংবাদ শুনে মা রত্না দত্তসহ আত্মীয় স্বজন কান্নায় ভেঙে পড়েন। তবে সাগরের সাথে কোনো মেয়ের সম্পর্ক ছিল কিনা- তা তিনি বলতে পারেনি।

কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সদর সার্কেল) তানভীর সালেহীন ইমন জানান, তিনতলা ভবনের নিচ তলায় ৬ জন তরুণ যুবক থাকতেন। ধারণা করা হচ্ছে তাদের মধ্যে প্রেম সংক্রান্ত বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব চলছিল। সেই জেরে হত্যাকাণ্ডটি ঘটেছে। নিহত সাগরের গলায় ছুরিঘাকাত করে হত্যা করা হয়েছে। আর আহত সজিব সাহার বুকে গুলি করা হয়। তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য ঢাকা পাঠানো হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে একটি পিস্তল, একটি ছুরি ও বটি উদ্ধার করা হয়েছে। হত্যার সাথে জড়িত ও বসবাসরত বাকী ৪ জনকে আটকের জন্য পুলিশ অভিযান এবং তদন্ত চলছে।

নোয়াখালীতে যুবলীগ নেতাকে কুপিয়ে ও গুলি করে হত্যা

২০১১-২০১৬ | বিবিসিজার্নাল.ডটকম'র কোনো সংবাদ বা ছবি অন্য কোথাও প্রকাশ করবেন না

Development by: webnewsdesign.com